২৮শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ , ১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বার্তাটি লিখেছেন: Md Mahfuz ahmed

আমার সম্পর্কে : প্রতিনিধি
প্রচ্ছদ বিভাগ সিলেট

নো মাস্ক, নো সার্ভিস’ নীতি

মহামারি করোনার দ্বিতীয় ঢেউ ঠেকাতে মাস্ক ‘বাধ্যতামূলক’ করা হয়েছে। এ বিষয়ক একটি চিঠি মন্ত্রণালয় থেকে সিলেটের বিভিন্ন দপ্তরে এসে পৌঁছেছে। মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী সিলেটে স্বাস্থ্য বিভাগ ও প্রশাসনের পক্ষ থেকে নেয়া হয়েছে নানা উদ্যোগ। জনসাধারণের মাস্ক পরাকে করা হয়েছে ‘বাধ্যতামূলক’।

করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় পর্যায়ে সংক্রমণ রোধে ‘নো মাস্ক, নো সার্ভিস’ নীতি ব্যাপকভাবে বাস্তবায়নের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাঁর এ নির্দেশনা বাস্তবায়নে সিলেটে স্বাস্থ্য বিভাগ, প্রশাসন ও নগর কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে নেয়া হয়েছে নানা উদ্যোগ। এরই মধ্যে জনসাধারণকে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক এবং স্বাস্থ্যসচেতনতা বৃদ্ধি করতে সিলেটে শুরু হয়েছে মাইকযোগে প্রচারণা।

বুধ ও বৃহস্পতিবার (১১ ও ১২ নভেম্বর) নগরীতে দিন্যবাপী সিলেট সিটি করপোরেশন ও সিভিল সার্জন কার্যালয়ের পক্ষ থেকে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করতে মাইকযোগে প্রচারণা চালানো হয়। এতে নগরবাসীকে বাধ্যতামূলক মাস্ক পরতে এবং স্বাস্থ্যবিধি মানতে অনুরোধ করা হয়।

জানা গেছে, ‘নো মাস্ক, নো সার্ভিস’ নীতি বাস্তবায়নে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে মঙ্গলবার (১০ নভেম্বর) একটি চিঠি সিলেট বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য), জেলা প্রশাসক ও সিভিল সার্জন বরাবরে প্রেরণ করা হয়। চিঠিতে সিলেটে জনসাধারণকে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক এবং স্বাস্থ্যসচেতনতা বৃদ্ধি করতে মাইকিং, লিফলেট বিতরণ, সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে ব্যানার টানানোসহ নানা উদ্যোগ গ্রহণ করতে নির্দেশনা প্রদান করা হয়।

এ বিষয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সিলেট বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক আনিসুর রহমান বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বলেন, ‘মন্ত্রণালয়ের চিঠির প্রেক্ষিতে সিভিল সার্জন কার্যালয়ের উদ্যোগে সিলেটে জনসাধারণের মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক এবং স্বাস্থ্যসচেতনতা বৃদ্ধি করতে গতকাল (১১ নভেম্বর) থেকে মাইকিং করা হচ্ছে। এছাড়াও সিলেট সিটি করপোরেশন স্ব-উদ্যোগে এ বিষয়ে মাইকিং করছে।’

তিনি বলেন, মন্ত্রণালয়ের চিঠিতে সিলেটে ‘নো মাস্ক, নো সার্ভিস’ নীতি বাস্তবায়নে কয়েকটি নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। সিলেটের হাসপাতাল-ক্লিনিকসহ প্রতি সরকারি-বেসরকারি অফিসে এ বিষয়ক ব্যানার টানাতে হবে এবং কেউ মাস্কবিহীন আসলে তাকে সার্ভিস না দিয়ে মাস্ক পরে আসতে অনুরোধ জানাতে হবে। মাস্ক পরে আসলেই কেবল সার্ভিস প্রদান করা হবে।

মাস্ক পরার বিষয়ে সিলেটের মানুষ খুবই উদাসীন উল্লেখ করে ডা. আনিস বলেন, সিলেটে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ ঠেকাতে ‘নো মাস্ক, নো সার্ভিস’ নীতি বাস্তবায়নের বিকল্প নেই।

সবাইকে মাস্ক পরে শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে নিজ নিজ দায়িত্ব পালনের আহবান জানান ডা. আনিসুর রহমান।

Leave a comment