৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ , ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বার্তাটি লিখেছেন: বিপ্র দাস বিশু বিত্রম

আমার সম্পর্কে : নির্বাহী সম্পাদক
প্রচ্ছদ বিভাগ Uncategorized

সাতকানিয়ায় ‘আল্লাহর দল’র ইউনিট প্রধানসহ আটক ৪

সাতকানিয়া থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে নিষিদ্ধ সংগঠন ‘‘আল্লাহর দলের’’  ইউনিট প্রধানসহ চারজনকে আটক করেছে। তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে ৩টি ককটেল ও জিহাদী বই। গত সোমবার দিনগত রাতে উপজেলার মিঠাদীঘি এলাকা থেকে পুলিশ তাদের আটক করে। আটককৃতদের বিরুদ্ধে সাতকানিয়া থানায় বিস্ফোরক আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

আটককৃতরা হলেন, দলের ইউনিট প্রধান নাটোর সদরের উত্তর চৌকিদার পাড়ার আব্দুল জলিল প্রামানিকের ছেলে মো. আমিনুল ইসলাম (২৯), ঠাকুরগাঁও জেলার পীরগঞ্জ থানার হাজিরপুর ইউনিয়নের করোনা এলাকার আবু তাহের প্রকাশ রফিকুল হোসেন মেকারের ছেলে মো. শামসাদ (২৫), চকরিয়ার  ডুলাহাজারার বেহুয়ার রমজান আলীর ছেলে জিয়াবুল করিম (২৩) ও একই উপজেলার কাঁকড়া পুলের ছড়ার মো. শফির ছেলে সাইফুল ইসলাম (২৬)।

জানা যায়, আল্লাহর দল নিষিদ্ধ সংগঠনটির প্রধান মতিন মেহেদী। তার মতাদর্শে বিশ্বাসী হয়ে দক্ষিণ চট্টগ্রামে আমিনুলের নেতৃত্বে প্রচার কার্যক্রম চালানো হচ্ছে দীর্ঘদিন ধরে।

আটক আমিনুল ইসলাম  বলেন, এ অঞ্চলে এসে কয়েক মাস ধরে দলের সদস্য সংখ্যা বাড়ানোর কাজ করে আসছিলাম আমি। এই পর্যন্ত চারটি অঞ্চলে আল্লাহর দল নামের সংগঠনটির দায়িত্ব পালন করেছি। সারাদেশে আমাদের দলের কাজ করার জন্য একাধিক ইউনিট রয়েছে।

সাতকানিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. রফিকুল হোসেন বলেন, সামনে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড চালানোর জন্য নিষিদ্ধ সংগঠনটির সদস্যরা মতিন মেহেদীর মতাদর্শে বিশ্বাসী হয়ে সাতকানিয়া লোহাগাড়ার বিভিন্ন এলাকায় প্রচারণা চালিয়ে আসছে। এখানকার লোকজনকে তাদের দলে অন্তর্ভুক্ত করার চেষ্টা ও সুযোগে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটানো তাদের লক্ষ ছিল। স্থানীয় লোকজনের সহযোগীতায়
নিষিদ্ধ সংগঠন ‘‘আল্লাহর দলের’’ ৪জনকে আটক করা হয়েছে। তাদের কাছ থেকে বিস্ফোরক দ্রব্য, প্রচারপত্র ও জিহাদী বই উদ্ধার করা হয়েছে।

এব্যাপারে সাতকানিয়া থানায় বিস্ফোরক আইনে মামলা দায়ের করে এবং মঙ্গলবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

সাতকানিয়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হাছানুজ্জামান মোল্যা বলেন, নিষিদ্ধ সংগঠন ‘‘আল্লাহর দলের’’ ইউনিট প্রধানসহ চারজনকে আটক করা হয়েছে। তারা পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে মতিন মেহেদীর আদর্শে বিশ্বাসী হয়ে এখানে দলের লোক সংখ্যা বাড়ানোর চেষ্টা চালাচ্ছে গত কয়েক মাস ধরে। এলাকায় বিভিন্ন ভেসে মানুষের সাথে মিশে নিষিদ্ধ সংগঠনের জন্য প্রচারণা চালিয়ে আসছে। এছাড়া নাশকতা করারও পরিকল্পনা ছিল তাদের।

Leave a comment