১৪ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১লা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

বার্তাটি লিখেছেন: আশফাকুর রহমান

আমার সম্পর্কে : বার্তা বিভাগ প্রধান
প্রচ্ছদ বিভাগ বিনোদন

কপাল পুড়া দীঘি

টুঙ্গিপাড়ার মিয়া ভাই’ ৬৫টি হল পাবে- এমনটাই জানিয়েছিলেন প্রযোজক-পরিচালক সেলিম খান। তাই নয়, ছবিটিকে কেন্দ্র করে নতুনকরে পুরনো ২০টি হল খোলার খবরও দিয়েছেন এই প্রযোজক।
৩০ মার্চ বলেছিলেন, বুকিং হয়েছে ৫৫টি হল। ১ এপ্রিল নাগাদ সংখ্যাটি ৬৫-৭০-এর দিকে যাবে। কিন্তু হলো বিপরীত! ২ এপ্রিল মাত্র ৫৪টি হলে মুক্তি পেয়েছে আলোচিত ছবিটি। কারণ দেশের পাঁচ জেলা প্রশাসক নিজ শহরে সিনেমাহল বন্ধ ঘোষণা করেছেন।

সেলিম খান ১ এপ্রিল রাতে বলেন, ‘এটা কেমন কথা, সরকার লকডাউন দেয়নি। ডিসি সাহেবরা জেলায় জেলায় লকডাউন করে দিলো! অথচ আমরা সরকারি শর্ত-স্বাস্থ্যবিধি মেনে ছবি মুক্তি দিচ্ছি। আমরা মোট ৫৯টি হল পেয়েছিলাম। কিন্তু পাঁচ জেলায় প্রদর্শন করতে না পারায় এখন সংখ্যা দাঁড়ালো ৫৪টি।’

বন্ধ জেলাগুলো হলো চট্টগ্রাম, নরসিংদী, ফরিদপুর, শেরপুর ও চাঁদপুর। ‘টুঙ্গিপাড়ার মিয়া ভাই’ ছবিতে বঙ্গবন্ধুর চরিত্রে অভিনয় করেছেন শান্ত খান। তার স্ত্রী রেনুর ভূমিকায় আছেন প্রার্থনা ফারদিন দীঘি। ছবিটি পরিচালনা করেছেন সেলিম খানসিনেমার অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন জয়ন্ত চট্টোপাধ্যায়, জিয়াউল হাসান কিসলু, শিবা শানুসহ অনেকে।

Leave a comment