১লা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ , ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বার্তাটি লিখেছেন: আশফাকুর রহমান

আমার সম্পর্কে : বার্তা বিভাগ প্রধান
প্রচ্ছদ বিভাগ খেলাধুলা

এমন দৃশ্য আগে দেখেনি সিলেটের মাঠ

ক্রিকেট হোক কিংবা ফুটবল, সব নিয়ে সিলেটের ক্রীড়াপ্রেমীদের মাতামাতির শেষ নেই। সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অতীতে বিপিএল কিংবা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের যতো ম্যাচ হয়েছে, সবগুলোতে গ্যালারিতে উপচেপড়া দর্শক দেখা গেছে।

২০১৭ সালে বিপিএলের পঞ্চম আসরের ৮টি ম্যাচ হয়েছিল সিলেটে। তখন টিকেট নিয়ে কাড়াকাড়ি ছিল চোখে পড়ার মতো। এরপর দেশের সুন্দরতম মাঠটিতে বাংলাদেশ জাতীয় দল শ্রীলঙ্কা, জিম্বাবুয়ে ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে একে একে খেলেছে টি-টোয়েন্টি, টেস্ট ও ওয়ানডে। টি-টোয়েন্টি ও ওয়ানডে ম্যাচের আগে টিকেটের জন্য ক্রীড়াপ্রেমীদের দীর্ঘ লাইন প্রত্যক্ষ করা গেছে। সেসব ম্যাচ শুরু হওয়ার আগেই ভরে ওঠতো স্টেডিয়ামের সকল গ্যালারি। এমনকি টেস্ট ম্যাচেও উল্লেখযোগ্য সংখ্যক দর্শক হয়েছিল।

কিন্তু এবার বিপিএলের ষষ্ঠ আসরে সিলেট পর্বের শুরুটা যেন রীতিমতো চমকেই দিল সবাইকে। স্টেডিয়ামের গ্যালারি যে খাঁ খাঁ করছে!

আজ মঙ্গলবার বেলা দেড়টায় রাজশাহী কিংস ও খুলনা টাইটানসের মধ্যকার ম্যাচ শুরুর এক ঘন্টা পরও স্টেডিয়ামের গ্যালারির সিংহভাগ আসন ফাঁকা রয়েছে। প্রায় ১৮ হাজার দর্শক ধারণক্ষমতার গ্যালারিতে হাজারখানেক দর্শক ছড়িয়ে-ছিটিয়ে বসেছেন।

সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিটেক স্টেডিয়ামে টি-টোয়েন্টি কিংবা ওয়ানডে ম্যাচ হয়েছে, আর দর্শকে গ্যালারি পূরণ হয়নি, এমন দৃশ্য আজকের আগে বিরলই ছিল। সেই বিরল দৃশ্যই আজ দেখা হয়ে গেল সবার।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, এবার বিপিএল নিয়ে সিলেটে কোনো ধরনের প্রচারণা ছিল না। এমনকি ম্যাচ শুরুর আগের দিন শুরু হয় টিকেট বিক্রি, যা অনেকেই জানতেন না। ফলে টিকেট নিয়েও এবার কাড়াকাড়ি ছিল না।

তবে আজ সন্ধ্যায় সিলেট সিক্সার্স ও কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের মধ্যকার ম্যাচে দর্শকে গ্যালারি ভরতে পারে, এমন আশায় আছেন বিপিএলের আয়োজকরা।

Leave a comment