৯ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ২৪শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বার্তাটি লিখেছেন: মোঃ মাহফুজ আহমদ

আমার সম্পর্কে : প্রতিনিধি
প্রচ্ছদ বিভাগ আন্তর্জাতিকইসলামিক

পবিত্র হজ উপলক্ষ্যে দেওয়া আরাফাত দিবসের খুতবাটি বাংলাসহ ১৪টি ভাষায় লাইভ অনুবাদ করা হবে

অনলাইন ডেস্কঃ এ বছর পবিত্র হজ উপলক্ষ্যে দেওয়া আরাফাত দিবসের খুতবাটি মোট ১৪টি ভাষায় লাইভ অনুবাদ প্রচার করা হবে বলে জানিয়েছে সৌদি আরব সরকার। খবর আরব নিউজের।ইসলামিক ক্যালেন্ডারের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ এ খুতবা সর্বাধিক সম্ভাব্য শ্রোতার কাছে সংযম ও সহনশীলতার বার্তা পৌঁছে দিতে এমন পদক্ষেপ নিয়েছে কর্তপক্ষ।অনুবাদের তালিকায় থাকা ভাষাগুলো হলো-ইংরেজি, বাংলা, ফরাসি, মালয়, উর্দু, ফার্সি, রুশ, চীনা, তুর্কি, হাউসা, স্প্যানিশ, ভারতীয়, সোয়াহিলি এবং তামিল।দুই পবিত্র মসজিদ-বিষয়ক জেনারেল প্রেসিডেন্সির সভাপতি আবদুল রহমান আল-সুদাইস বলেছেন, সৌদি কর্তপক্ষ মসজিদে নববী এবং গ্র্যান্ড মসজিদের পরিষেবার উন্নয়নে সীমাহীন সহায়তা দিচ্ছে।

আল-সুদাইস বলেন, আরাফাতের খুতবাটির লাইভ অনুবাদ এবার পঞ্চম বছরে পদার্পণ করছে। আরবি ছাড়াও খুতবাটি এ বছর আরও ১৪টি ভাষায় অনুবাদ করে প্রচার করা হবে।গতকাল বৃহস্পতিবার সৌদির আল-নিমরা মসজিদে লাইভ অনুবাদ সাইটের একটি মিডিয়া সফরের পর প্রেসিডেন্সির সদর দপ্তরে এ সংক্রান্ত একটি সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।সংবাদ সম্মেলনে আল-সুদাইস বলেন, সৌদি কর্তপক্ষ হজযাত্রী ও দর্শনার্থীদের সেবা প্রদানের জন্য আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে বিশ্বকে ইসলামের সংযম ও সহনশীলতার বার্তা পৌঁছে দিতে আগ্রহী।আরাফাত দিবসের খুতবাটির লাইভ অনুবাদ বিশ্বের জন্য একটি বিস্তৃত প্রকল্প, বিশেষ করে পবিত্র স্থানগুলোতে দর্শনার্থীদের জন্য, যা অনারবি ভাষাভাষীদের তাঁদের মাতৃভাষায় শুনতে সুযোগ করে দেয়, যোগ করেন আল-সুদাইস।

উল্লেখ্য, প্রায় দেড় হাজার বছর আগে এই আরাফাতের ময়দান থেকেই মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) মানবাধিকার, ইসলামের শিক্ষা এবং নারীর অধিকার এবং সুন্নাহ মেনে চলার জন্য ঐতিহাসিক বিদায় হজের ভাষণটি দিয়েছিলেন। আরাফাত দিবসের খুতবাটির অনুবাদের ফলে প্রথম বছরে এক মিলিয়ন মানুষ উপকৃত হয়েছেন, দ্বিতীয় বছরে ১১ মিলিয়ন, তৃতীয়টিতে ৫০ মিলিয়ন, চতুর্থ বছরে ১০০ মিলিয়ন এবং ২০২২ সালে সারা বিশ্বের ২০০ মিলিয়ন লোকের কাছে পৌঁছাবে বলে আশা করেন আবদুল রহমান আল-সুদাইস।

Leave a comment