১৬ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ২রা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

বার্তাটি লিখেছেন: বিপ্র দাস বিশু বিত্রম

আমার সম্পর্কে : নির্বাহী সম্পাদক
প্রচ্ছদ বিভাগ বিনোদন

প্রয়াত শঙ্খ ঘোষের স্ত্রী প্রতিমা দেবী

কিছুদিন আগে করোনা সংক্রমণে প্রয়াত হয়েছেন কবি শঙ্খ ঘোষ। এবার সেই করোনা সংক্রমণেই  প্রয়াত হলেন কবির স্ত্রী প্রতিমা ঘোষ। তিনি হোম আইসোলেশনে ছিলেন।

বাংলা সাহিত্যের বিশেষ করে বাংলা কবিতার প্রবাদ পুরুষ কবি শঙ্খ ঘোষ করোনা সংক্রমণে প্রায়ত হন ২১ এপ্রিল। তিনিও করোনা সংক্রমিত হয়ে বাড়িতেই চিকিৎসারাত ছিলেন। তবে শেষ পর্যন্ত চিকিৎসায় তিনি আর সাড়া দেননি। কবির প্রয়াণের ঠিক ৮ দিনের ব্যবধানে কবির স্ত্রী প্রতিমা ঘোষের জীবনাবসান হল সেই একই মারণ রোগ করোনায় । শঙ্খ ঘোষ যখন করোনা আক্রান্ত হন সেই সঙ্গেই তাঁর স্ত্রীও করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন। করোনা আক্রান্ত হয়ে প্রতিমা ঘোষ হোম আইসোলেশনেই ছিলেন। কবিজায়ারও বয়স হয়েছিল ৮৯ বছর। শঙ্খ ঘোষও ৮৯ বছরেই প্রয়াত হন। কবি শঙ্খ ঘোষ ও প্রতিমাদেবী একই সঙ্গে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তেন।

উত্তর বঙ্গের জলপাইগুড়িতে প্রতিমা ঘোষের জন্ম । কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগে শঙ্খ ঘোষ ও প্রতিমাদেবী এক সঙ্গে পড়তেন। সেই তাঁদের পরিচয়। তার পর এতটা সময় এক সঙ্গে চলা। সেই চলা কবি শেষ করেছেন ৮ দিন আগে। এবার চলার পথে ছেদ টানলেন কবিপত্নী প্রতিমাদেবী।
প্রতিমা ঘোষ অধ্যাপনা করেছেন বিদ্যাসাগর মর্নিং কলেজে। তিন একাধিক বই লিখেছেন । বৃহস্পতিবার সকালে বাড়িতেই মৃত্যু হয়েছে শঙ্খ ঘোষের স্ত্রী প্রতিমা ঘোষের । তাঁর কন্যা, জামাতা সহ বেশ কয়েকজন এখনও করোনা আক্রান্ত। এদের মধ্যে কেউ কেউ হাসপাতালেও ভর্তি রয়েছেন।

রাজ্যে যে হারে করোনা সংক্রমণ বাড়ছে সেটা সত্যি চিন্তার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। এছাড়া করোনার দ্বিতীয় ঢেউ প্রথমবারের চাইতে অনেক বেশি শক্তিশালী বলে জানাচ্ছেন চিকিৎসকরা। তাঁরা বলছেন, অন্য অসুস্থতার সঙ্গে কারও যদি করোনা সংক্রমণ হয় তাহলে তাঁকে বাঁচানো কষ্টকর হয়ে পড়ছে। তাছাড়া বয়স্কদের ক্ষেত্রে করোনা সংক্রমণের পাশাপাশি অন্যান্য রোগও থাকার সম্ভাবনা থেকেই যায়। তাই বয়স্কদের করোনা সংক্রমণ হলে বেঁচে ফেরার সম্ভাবনা ক্ষীণ হয়ে দাঁড়ায়।

শঙ্খ ঘোষ করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর তিনি হাসপাতালে যেতে চাননি। বাড়িতেই তাই তাঁর চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছিল। কবির স্ত্রীর করোনা হওয়ার পরেও তাঁকে বাড়িতে রেখেই চিকিৎসা চলছিল। শেষ পর্যন্ত তাঁর জীবনদীপ নিভিয়ে দিল মারণ রোগ করোনা।

Leave a comment