৩রা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ , ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বার্তাটি লিখেছেন: বিপ্র দাস বিশু বিত্রম

আমার সম্পর্কে : নির্বাহী সম্পাদক
প্রচ্ছদ বিভাগ বাংলাদেশ

পরিবহন ধর্মঘট

অনলাইন ডেস্ক: পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া হাইওয়ে থানা পুলিশের ওসি এনামুল হকের অপসারণসহ ৫ দফা দাবিতে সোমবার ভোর ৬টা থেকে যৌথভাবে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে মোটরমালিক ও শ্রমিদের পাঁচটি সংগঠন।

রোববার সন্ধ্যায় জেলা মোটরমালিক সমিতি কার্যালয়ে এক জরুরি বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। ধর্মঘট চলাকালে জেলার সবকটি রুটে বাস, ট্রাক, কোচসহ সকল প্রকার যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে বলে জানান মোটরমালিক ও শ্রমিক নেতারা। তিনদিন আগে শহরে মাইকিং করে তারা এ ধর্মঘটের আলটিমেটাম দিয়েছিলেন।
এ নিয়ে রোববার দুপুরে জেলা প্রশাসন সম্মেলন কক্ষে জরুরি বৈঠক আহ্বান করে জেলা প্রশাসক মো. জহিরুল ইসলাম। বৈঠকে তেঁতুলিয়া হাইওয়ে থানা পুলিশের ওসি এনামুল হকের বিরুদ্ধে ট্রাকে পাথর ও বালু ওভার লোডিংয়ের নামে গাড়ি চালকদের হয়রানির অভিযোগ এনে তাকে প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়।

এছাড়া যত্রতত্র পার্কিং না করা, বিআরটিসি বাস নির্দিষ্ট স্থানে পার্কিং, পৌরসভা কর্তৃক ঘোষিত ইজিবাইক, থ্রি-হুইলার ও পাগলুর ইজারা দরপত্র বাতিল করা, কেন্দ্রীয় ট্রাক টার্মিনালে পয়োনিষ্কাশন ব্যবস্থার উন্নয়নসহ সংস্কারের পূর্বে আহ্বান করা ইজারা বাতিল করা এবং কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালে জুয়া, মাদকসহ সুইপার বস্তি অপসারণের দাবিও জানানো হয়।

বিকেল পর্যন্ত চলা উভয়পক্ষের আলোচনায় জেলা প্রশাসনের আশ্বাসে ঐক্যমত না হওয়ায় মোটরমালিক ও শ্রমিক নেতারা ধর্মঘটের ডাক দেয়।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ গোলাম আজম বলেন, আমরা তাদের রমজানের সম্মানার্থে ধর্মঘট থেকে বিরত থাকার আহ্বান করেছিলাম। তাদের দাবি সময়সাপেক্ষ। কিন্তু তারা আমাদের কোনো কথাই না মেনে ধর্মঘটের ডাক দেয়। আমরা আমাদের মতো করে বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করছি।

জেলা মোটরমালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আপেল মাহমুদ বলেন, ওসি এনামুল হক অবৈধ সুবিধা নিয়ে ট্রাক চালকদের সঙ্গে বৈষম্যমূলক আচরণ করেন। আমরা তাকে প্রত্যাহারসহ ৫ দফা দাবি না মানা পর্যন্ত ধর্মঘট অব্যাহত রাখবো।

Leave a comment