৩০শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ , ১৪ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বার্তাটি লিখেছেন: shuddhobarta24@

আমার সম্পর্কে : This author may not interusted to share anything with others
প্রচ্ছদ বিভাগ সিলেট

বিশ্বনাথে শিশু খুন : উত্তাল জনতা

বিশ্বনাথ প্রতিনিধি : সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার রামপাশা ইউনিয়নের রহমান নগর গ্রামের আকবর আলীর পুত্র ও গোয়াহরি দাখিল মাদরাসার ৩য় শ্রেণীর ছাত্র রবিউল ইসলামকে (১২) ণির্মমভাবে খুন করা হয়েছে। গরুর পা কাটার স্বাক্ষী দেওয়ায় শিশু রবিউলের পুরুষাঙ্গ কেটে, চোখ দুটি নষ্ট করে, গাড় ভেঙ্গে, শরীরের একাধিক স্থানে সিগারেটের ছেকা দিয়ে হত্যা করা আধিযুগের সেই বর্বরতাকেও হার মানিয়েছে। নিঃসংশভাবে খুন করে পানিতে ফেলে দেয় তার লাশ। এমন ণির্মম হত্যাকান্ডে উত্তাল হয়ে উঠেছে পূরো বিশ্বনাথ উপজেলা।
(১৬ অক্টোবর) শুক্রবার বিকেলে উপজেলার বৈরাগী বাজারে এলাকার সর্বস্তরের জনসাধারণের আয়োজনে পালন করা হয়েছে এক বিশাল মানববন্ধন কর্মসূচী ও প্রতিবাদ সভা। সভায় বক্তারা বলেন, সামিউল খুনের আজ ৩দিন অতিবাহিত হলেও এখনও পুলিশ ঘাতকদের গ্রেফতার করেনি। আগামী ২০ অক্টোবরের মধ্যে আইন-শৃংখলা বাহিনীকে রবিউলের হত্যাকারী সাদিক-কাদিরসহ অন্যান্য আসামিদের গ্রেফতার করতে হবে। না হলে ২১ অক্টোবর উপজেলা সদরের বাসিয়া সেতুর উপর অনুষ্ঠিত মানববন্ধন থেকে কঠোর আন্দোলনের ডাক দিবে এলাকাবাসী।
রামপাশা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো, আলমগীর হোসেনের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন, সাম্যবাদি কবি সাঈদুর রহমান সাইদ, গোয়াহরি আল-ইনশাদিয়া দাখিল মাদরাসার সুপার মাওলানা ইসহাক হোসাইন, সিনিয়র শিক্ষক মাওলানা আব্দুল গফুর, প্রবাষক ইসলামুজ্জামান, সাবেক ইউপি সদস্য আনিসুজ্জামান, বৈরাগী বাজার হাফিজিয়া মাদরাসার প্রধান হাফিজ আব্দুল কাদির, বৈরাগী বাজার বণিক কল্যাণ সমিতির সভাপতি আব্দুস শহীদ, সমাজ সেবক শফিকুর রহমান বাবুল, যুবলীগ নেতা আবুল কাহার, সেচ্চাসেবকলীগ নেতা আতিকুর রহমান, উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা আব্দুল মুকিত সুমন, বিএনপি নেতা খসরুজ্জামান খসরু, আব্দুর রশিদ ইউসুফ, সাদ আলম, সিরাজুল ইসলাম সিরাজ, সাংবাদিক প্রণঞ্জয় বৈদ্য অপু।
প্রসঙ্গ, গত ১২ অক্টোবর সোমবার সকালে নিখোজ হয় সামিউল নিখোজের একদিন পর ১৩ অক্টোবর মঙ্গলবার সকালে রামপাশা বৈরাগী বাজার সড়কের বাল্লার ব্রীজের পাশের ডোবা থেকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। সামিউল উপজেলার রামপাশা ইউনিয়নের রহমান নগর গামের আকবর আলীর পুত্র। এ ঘটনায় সামিউলের মামা বাদি হয়ে ৭ জনকে আসামি করে বিশ্বনাথ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। ঘটনার দিন পুলিশ আসামি আব্দুল কাদিরের স্ত্রী মাজেদা বেগমকে গ্রেফতার করেছে।

Leave a comment