২২শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৮ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বার্তাটি লিখেছেন: shuddhobarta24@

আমার সম্পর্কে : This author may not interusted to share anything with others
প্রচ্ছদ বিভাগ এক্সক্লুসিভ

বৈশাখ আসার আগেই কালবৈশাখীর আঘাত

ডেস্ক নিউজ : সারাদেশে কালবৈশাখী ঝড় হচ্ছে। যা এখন ঘনঘন হবে, সঙ্গে থাকবে শীলাবৃষ্টি।কালবৈশাখীর হানায় দেশের নদীবন্দরগুলোতে দেওয়া হয়েছে সর্তকতা।

আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে,গত কয়েকদিন থেকেই দেশের কোথাও কোথাও দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টি হচ্ছে। তবে বৃহস্পতিবার থেকে তা বেড়েছে। শুক্রবার দেশের সব বিভাগে শুরু হয়েছে কালবৈশাখী, সঙ্গে শিলা ঝড়ছে।

শুক্রবার দুপুর এর দিকে ‍এক পূর্বাভাসে সংস্থাটি জানিয়েছে,সিলে, রাজশাহী, টাঙ্গাইল, পাবনা, বগুড়া, ময়মনসিংহ, ঢাকা, ফরিদপুর, মাদারীপুর, কুমিল্লা এবং নোয়াখালী,অঞ্চলগুলোর ওপর দিয়ে পশ্চিম/উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৬০ থেকে ৮০ কিলোমিটার বেগে অস্থায়ীভাবে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। সেই সঙ্গে বৃষ্টি, বজ্রসহ বৃষ্টিপাত হতে পারে। কোথাও কোথাও শিলাবৃষ্টি হতে পারে। তাই এসব এলাকার নদী বন্দরকে ০২ নম্বর নৌ হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

এছাড়া দেশের অন্যত্র একই দিক থেকে ঘণ্টায় ৪০ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়া বয়ে যাবে। সেই সঙ্গে বজ্রসহ বৃষ্টিপাত হতে পারে। এসব এলাকার নদী বন্দরকে ০১ নম্বর সতর্কতা সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

আবহাওয়াবিদ মিজানুর রহমান জানান বলেন, এখন কালবৈশাখীর সময়। এটা ঘনঘন হবে। শুক্রবার দেশের সব বিভাগের ওপর দিয়েই এটা বয়ে যাচ্ছে। তবে সামুদ্রিক সতর্কতা নেই। ভারী বৃষ্টিপাতেরও কোনো পূর্বাভাস নেই। শুক্রবার দেশের সবচেয়ে বেশি ৩০ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে তেঁতুলিয়ায়।

এদিকে সিলেট এর বিভিন্ন এলাকাজুড়ে হঠাৎ কালবৈশাখী ঝড়গতি খুব বেশি হয়, দুপুরের পর থেকে কোথাও কোথাও হালকা বৃষ্টিপাত হলে তার কিছুক্ষণ পর খুব বেশি ঝড় /বৃষ্টিপাত পরে আকাশ।

এতে অনেক গাছগাছালি পরে রাস্তা বন্ধ হয় এবং দেশের অনেক স্থানে শিলাবৃষ্টিসহ কালবৈশাখীতে ঘরের টিনের চালা পর্যন্ত উধাও হয়ে গেছে।

তবে এই ঝড়ো হাওয়া অনেক ক্ষতি হয়েছে গ্রামএলাকাজুড়ে।

Leave a comment