২০শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৬ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বার্তাটি লিখেছেন: Limon Ahmed

আমার সম্পর্কে : প্রতিনিধি
প্রচ্ছদ বিভাগ খেলাধুলাবাংলাদেশ

পাকিস্তানকে থামাল নিউজিল্যান্ড

পাকিস্তানের শুরু আর শেষের ব্যাটিংয়ে বেশ মিল আছে। দু’টোই ব্যর্থ। তবে মিডল অর্ডারের দক্ষতায় রক্ষা। তারপরও দিনশেষে বড় অংক যোগ হয়নি তাদের নামের পাশে।নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের ২য় টেস্টের ১ম ইনিংসে পাক ব্যাটসম্যানরা গুটিয়ে গেছে ২৯৭ রানে। দুর্দান্ত বোলিংয়ে সফরকারীদের ব্যাটিং লাইনআপ গুঁড়িয়ে দিয়েছেন কিউই বোলার কাইল জেমিসন। ৬৯ রানে ৫ উইকেট নিয়েছেন তিনি।

ক্রাইস্টচার্চে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে ইনিংসের তৃতীয় ওভারেই শূন্য রানে আউট হন শান মাসুদ। দলের রান তখন মাত্র ৪।

আরেক ওপেনার আবিদ আলীকে সঙ্গে নিয়ে প্রতিরোধ গড়েন অভিজ্ঞ আজহার আলী। দ্বিতীয় উইকেটে তারা যোগ করেন ৬২ রান। ২৫ রান করে সাজঘরে ফেরেন আবিদ।

এরপর হারিস সোহাইল ১ রান এবং আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান ফাওয়াদ আলম ফিরে যান ব্যক্তিগত ২ রানে। ৮৩ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে বিপর্যয়ে পড়ে পাকরা।

তবে এগিয়ে আসেন অধিনায়ক রিজওয়ান। একপ্রান্ত আগলে রাখা আজহার আলীও ছিলেন। ৫ম উইকেটে দলকে বড় স্কোরের পথ দেখান। দু’জনে মিলে গড়েন ৮৮ রানের জুটি।

তবে দিনটা ছিলো জেমিসনের। পাকিস্তান অধিনায়ককে তিনি আউট করেন ৬১ রানে। সেঞ্চুরি থেকে মাত্র ৭ রান দূরে থাকতে আউট হন আজহার আলীও।

অলরাউন্ডার ফাহিম আশরাফ আশা দেখাচ্ছিলেন পাকিস্তানকে। অভিষিক্ত জাফর গহর তাকে ভালোই সঙ্গ দিচ্ছিলেন। তবে ৪৮ রান করা ফাহিম আশরাফকে ফিরিয়ে দিয়ে, ক্যারিয়ারে তৃতীয়বারের মতো ৫ উইকেট শিকার করেন জেমিসন। গহর সংগ্রহ করেন ৩৪ রান।

এদের দু’জনের বিদায়ের পর আর মাত্র ৩ ওভার টিকতে পেরেছিল পাক টেল এন্ডার। তাদেরকে গুটিয়ে দেন বোল্ট-সাউদি জুটি। জেমিসনের ৫ উইকেটের পাশাপাশি ২টি করে উইকেট শিকার করেন সাউদি ও বোল্ট।

ফলে পাকিস্তানের প্রথম ইনিংস থামে ২৯৭ রানে। শেষ সেশনে তারা অলআউট হয়ে যাওয়ায়, ১ম দিনের খেলার সমাপ্তি টানেন মাঠের আম্পায়াররা।

Leave a comment