২৫শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ , ১০ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বার্তাটি লিখেছেন: Shuddhobarta 24

আমার সম্পর্কে : This author may not interusted to share anything with others
প্রচ্ছদ বিভাগ আন্তর্জাতিক

ট্রাম্প একা, অন্যের বাহু ধরে মেলানিয়া

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প একা হাঁটছেন। তার সামান্য দূরত্বে নিরাপত্তা রক্ষায় নিয়োজিত সেনা সদস্যের বাহু জড়িয়ে ধরে অগ্রসর হচ্ছে ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্প। সদ্য সাবেক হতে যাওয়া প্রেসিডেন্ট ও ফার্স্ট লেডির এমন কিছু ছবি গণমাধ্যমে আলোড়ন তুলেছে। এর বিশেষ কারণ হচ্ছেওমারোসা মানিগোল্ড নিউম্যান নামের ট্রাম্পের সাবেক এক সহযোগী বলেছেন, জানুয়ারিতে হোয়াইট হাউস ছাড়ার পরই প্রেসিডেন্ট-ফার্স্ট লেডির বিচ্ছেদ হবে। খবর ডেইলি মেইল।
বিচ্ছেদের এমন গুঞ্জনের মধ্যে বুধবার (১১ নভেম্বর) ভেটেরানস ডে’র অনুষ্ঠানে যোগ দেন ট্রাম্প-মেলনিয়া। প্রতিদ্বন্দ্বী জো বাইডেনের বিজয় ঘোষণার পর এই প্রথম প্রকাশ্যে এলেন প্রেসিডেন্ট-ফার্স্ট লেডি। আর বিচ্ছেদের গুঞ্জন ও নির্বাচনে হারের পর প্রথম দর্শনে তাদের এমন দূরত্বমূলক আচরণের কারণে গুঞ্জন ডালপালা গজাচ্ছে৭৪ বছর বয়সী ট্রাম্প ও ৫০ বছর বয়সী মেলানিয়ার বিয়ে হয় ২০০৫ সালে। সংবাদমাধ্যম ও সামাজিক মিডিয়ায় তো বটেই, চায়ের কাপে ঝড়ের মতো মানুষের মুখরোচক আলোচনাগুলোতেও বয়সের বিশাল পার্থক্য থাকা এই দম্পতির বিয়েকে কেবল আনুষ্ঠানিক চুক্তি হিসেবে উল্লেখ করা হয়।
২০১৭ সালে ট্রাম্প হোয়াইট হাউসে ওঠার সময় মেলানিয়া নিউইয়র্ক ছেড়ে দেরিতে যোগ দেন হোয়াইট হাউসে। তখনও গুঞ্জন উঠে, প্রেসিডেন্ট-ফার্স্ট লেডির সংসারে ঝামেলা চলছে। ছেলে ব্যারনের জন্য ট্রাম্প সাম্রাজ্যের সম্পত্তির অংশ নিশ্চিত করার জন্য ডিভোর্সের অপেক্ষা করছেন মেলানিয়া। হোয়াইট হাউসের চার বছরের সময়কালে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে স্বামী-স্ত্রীর আচরণকে কেবল প্রফেশনাল মনে হয়েছে।
প্রেসিডেন্টের কাছ থেকে নিজের হাত ছাড়িয়ে নেয়া, দূরত্ব বজায় রেখে চলা- ইত্যাদি ছিল নিত্যসঙ্গী। দু’জনের একসঙ্গে উপস্থিতিতে মনে হতো মেলানিয়া যেন স্বামী ট্রাম্পের ওপর তীব্র বিরক্ত।
ক্ষমতার শেষ সময়ে এসেও এক অবস্থা। বরং পরিস্থিতি আরও খারাপ মনে হচ্ছে। জানুয়ারিতে বিচ্ছেদ হতে পারে বলে সাবেক সহযোগীর ছড়ানো গুঞ্জনের পর পাশাপাশি হেঁটেও স্বামীর হাত না ধরে রক্ষী সেনার হাত ধরায় বিতর্ক আরও চাউর হয়েছে। তবে ট্রাম্প-মেলানিয়া সম্পর্ক কোনদিকে গড়ায় তা চূড়ান্ত ঘটনার আগে অনুমান করে বলার উপায় নেই। কারণ শুধু ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট হওয়ার পরই নয়, দু’জনের বিয়ের পর থেকে নেতিবাচক বিভিন্ন তথ্য এসেছে। যেগুলো বলা হয়েছে দু’জনের এ সংসার অনেকটা জোড়াতালি দেয়া সংসার।
‘ভেটেরানস ডে’ হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের খ্যাতিমান সেনা সদস্যদের স্মরণে একটি আয়োজন। এতে প্রেসিডেন্ট-ফার্স্ট লেডির পাশাপাশি ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স ও সেকেন্ড লেডি, ট্রাম্পের কন্যা ও উপদেষ্টা ইভাঙ্কাসহ প্রশাসনের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a comment